অবস‌রে নবীন‌দের করণীয়

0
441

ছাত্র জীবনে আমরা অনেকেই অবসর খুঁজে বেড়াতাম। ক্লাস চলাকালীন খা‌রে‌জি মুতালাআ/দর‌সের বাই‌রের পড়াশোনার তেমন সময় পেতাম না। বিষয়ভিত্তিক জরুরি কিছু জ্ঞানার্জনের জন্য মনে হতো, যদি কিছু দিন ছুটি পেতাম বা ক্লাস কিছু দিন বন্ধ থাকতো! আবার অনেকের বেলায় এমনও দেখেছি, অবহেলা বা অলসতার কারণে অনেক দূর্বলতা রয়ে গেছে। যেমন হাতের লেখা খারাপ, ভাষাজ্ঞান কম, আরবি ব্যকরণিক দূর্বলতা। তারা ভাবতেন, আহ যদি কিছু দিন সময় পেতাম, তাহলে মেহনত করে এই দূর্বলতাগুলো কাটিয়ে ওঠা যেতো। কিন্তু নিয়মিত ক্লাস চলার কারণে অনেকেই এমন সুযোগ পেতো না। ফলে বেসিক দূর্বলতা রয়েই যেতো বা অতিরিক্ত পড়াশোনা করার তেমন সুযোগ পেতো না।

করোনাকালে আমরা অবসর সময় কাটাচ্ছি, আমরা ছাত্র ভাইরা চাইলে এই অবসরকে গনিমত মনে করে কাজে লাগাতে পারি। নিজের জ্ঞানের পরিধিকে বাড়াতে পারি, পারি অতিতের দূর্বলতা কাটিয়ে ওঠতে। নির্দিষ্ট শিক্ষকের তত্ত্ববধানে আসুন আমরা সময়টাকে কাজে লাগাই। রাসুল সা. পাঁচ বস্তুর পূর্বে পাঁচ বস্তুকে গনিমত মনে করার নির্দেশ দিয়েছেন। তন্মোধ্যে একটি হলো__ ব্যস্ততার পূর্বে অবসর সময়কে। আল্লাহ আমাদের তাওফিক দান করুন।

নবীন ফারেগীনরা নিজেদের স্কিল ডেভোলোপমেন্টে কাজ করতে পারি। ইংরেজি শিখতে পারি, কম্পিউটারের কিছু কোর্স করতে পারি, ওয়েব ডিজাইনিং শিখতে পারি। আমরা যারা লেখনি অঙ্গণে কাজের মানসিকতা রাখি, তারা এই ময়দানের অনুশীলন শুরু করতে পারি। অনুবাদ শিল্পেও হাত দিতে পারি। আল্লাহ তাওফিক দান করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.